• ১০ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১১ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

সিডরে নিহতদের স্মরনে বরগুনায় নির্মিত হলো সিডর স্মৃতি স্তম্ভ

admin
প্রকাশিত নভেম্বর ৩, ২০১৯, ২০:৩৫ অপরাহ্ণ
সিডরে নিহতদের স্মরনে বরগুনায় নির্মিত হলো সিডর স্মৃতি স্তম্ভ

বরগুনার নলটোনা ইউনিয়নের গর্জন বুনিয়ায় নির্মিত সিডর স্মৃতি স্তম্ভ উদ্বোধন করা হয়েছে। ২০০৭ সালের ১৫ নভেম্বর প্রলয়ঙ্কারি ঘূর্ণিঝড় সিডরে নিহতদের স্মরনে বরগুনা সদর উপজেলা পরিষদের অর্থায়নে ও বরগুনা প্রেসক্লাবের সহোযোগিতায় প্রায় ১০ লাখ টাকা ব্যায়ে সিডরের ১৩ বছর পরে এই স্মৃতি স্তম্ভটি নির্মন করা হলো। এর আগে প্রেসক্লাবের উদ্ব্যোগে স্থানীয় প্রশাসন ও এনজিওদের সহযোগিতায় অস্থায়ী ভাবে একটি স্মৃতি ফলক তৈরি করে নিহতদের স্মৃতি সংরক্ষন করা হয়েছিল। যাদের স্মরণে প্রেসক্লাব প্রতি বছর ১৫ নভেম্বর স্মৃতিতে সিডর দিবসের আয়োজন করে আসছিল।

প্রলয়ঙ্করি ঘূর্ণিঝড় সিডরে বরগুনা জেলায় ১৩৪৫ জন মানুষ নিহত হয়েছিল। যার মধ্যে নলটোনা ইউনিয়নের গর্জন বুনিয়া গ্রামেই নিহত হয়েছিল ২৯ জন মানুষ। যাদের সবাইকে এই স্মৃতি স্তম্ভে গণকবর দেয়া হয়েছিল। সেই স্মৃতি বিজরিত স্থানটিতে এবার একটি দর্শনীয় স্মৃতি স্তম্ভ নির্মান করা হলো।

শনিবার বিকেলে এই সিডর স্মৃতি স্তম্ভ উদ্বোধন করেন, বরগুনা জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ। সাথে ছিলেন, সিডর স্মৃতি স্তম্ভ নির্মানের উদ্যোগ গ্রহনকারি বরগুনা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আনিচুর রহমান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মাহবুব আলম, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মনির হোসেন, জেলা সদরের সকল নির্বাহী মেজিস্ট্রেটগণ, প্রেসক্লাব সভাপতি চিত্ত রঞ্জন শীল, টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরাম সভাপতি মনির হোসেন কামাল, বরগুনা প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা কাদের, স্বপন দাস, হাফিজুর রহমান, আবু জাফর মো: সালেহ স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবীর ও স্থানীয় জনগন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আবদুস ছাত্তার এবং আছিয়া বেগম প্রলয়ঙ্করি ঘুর্নিঝর সিডরের সেই দুর্বিসহ রাতে তাদের স্বজন হারানোর বর্ণনা তুলে ধরেন। তারা দুজনেই সেই রাতে ৭ জন স্বজনকে হারিয়ে ছিলেন।

প্রতি বছরের ন্যায় এবারেও আগামি ১৫ নভেম্বর বরগুনা প্রেসক্লাবের আয়োজনে এই স্মৃতি স্তম্ভে নিহতদের স্মরণে সিডর দিবস পালিত হবে।