• ১৯শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৩রা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১২ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

স্বরুপকাঠিতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে রাতের আধারে বাপ ছেলের হামলা 

বিডিক্রাইম
প্রকাশিত অক্টোবর ১২, ২০২১, ২৩:৪৭ অপরাহ্ণ
স্বরুপকাঠিতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে রাতের আধারে বাপ ছেলের হামলা 
স্বরূপকাঠী প্রতিনিধি: পিরোজপুর জেলার স্বরূপকাঠি উপজেলা  ৭ নং গুয়ারেখা ইউনিয়নের  বড়বাড়ির মৃত্যু আঃ ছাত্তার শেখের  ছেলে আব্দুল কাউমের উপর পূর্বের শত্রুতার যেরে পূর্বের পরিকল্পিত  অনুযায়ী তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালায় একই বাড়ির,  মিন্টু, সাব্বির, অপু,ওবায়েদ গত সোমবার রাত আনুমানিক দশটার দিকে  পরিকল্পিত ভাবে কাইউমের বসতবাড়ির সামনে  যান হামলাকারীরা।
এসময় কাইউম তার ঘরের সামনে থাকা সিড়ির উপরে বসে ছিলেন হামলাকারীরা সেখানে গিয়ে কাইউম কে বিভিন্ন ভাবে অকথ্য ভাষায় ,গালাগালি, ও হুমকি ধামকি দিয়ে থাকে। একপর্যায়ে কাইউম জিজ্ঞাসা করলে কে আপনারা , হামলাকারীরা বলেন তুই সামনের দিকে আয় দেখবি কারা ।
এই বলে একের পর এক গালমন্দ করে থাকে। একপর্যায়ে কাইয়ুম প্রতিবাদ করলে তাকে লাথি ঘুঁষি ও লাঠি দিয়ে একপর্যায়ে মাথার উপরে পিটান দেন এমন সময় কাইয়ুম চিৎকার করলে  ।
এ-সময় ঘরে থাকা কাইউমের স্ত্রী সালমা আক্তার দেখতে পান তার স্বামীকে মারধর করে। স্ত্রী সালমা বাঁচার জন্য চিৎকার চেচামেচি করলে  এসে দেখতে পান হামলাকারীরা মাটিতে ফেলে কাইয়ুম কে লাথি গুশি ও লাঠি দিয়ে তাহার শরিরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাতাড়ি আঘাত করে।
তাহার স্ত্রী সালমা তাহার স্বামী কে বাচাতে এলে তাকেও লাথি ঘুঁষি অকথ্য ভাষায় মারপিট করে হামলাকারীরা। এতে তারা স্বামী স্ত্রী দুজনেই গুরুতর আহত হন। স্বামী-স্ত্রী চিৎকার শুনে এলাকার কয়েকজন লোক এসে তাদেরকে রক্ষা করেন। এ অবস্থায় তাদের দু’জন কে স্বরুপকাঠির স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে  ভর্তি করা হয়।
কাইয়ুমের স্ত্রী সালমা, চিকিৎসার পর  অবস্থার উন্নতি হলে ডাক্তার তাঁকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। এদিকে কাইয়ুমের অবস্থার অবনতি দেখে ডাক্তার তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করে নেন ।
এখন বর্তমানে তিনি চিকিৎসা দিন অবস্থায় রয়েছে। এদিকে আব্দুল কাইয়ুম কে সংবাদকর্মীরা জিজ্ঞেস করলে সে বলেন,।
আমাদের বাড়ির কাছে একটি মসজিদে আমাকে সেক্রেটারি করার জন্য ‌ তাদের হিংসার ও আগের পূর্বশত্রুতা থাকার কারণে আমাকে সন্ত্রাসী হামলা চালান, শুধু তাই নয় তারা ভাবছিলে এলাকার খারাপ প্রকৃতির লোক এবং মাদকাসক্তি বিভিন্ন ধরনের বাজে খারাপের সাথে তারা জড়িত থাকেন।
আমাদের সাথে ভালো কোনো আচরণ করেন না কোন কিছু প্রতিবাদ করতে গেলে একের পর এক আমাদেরকে হুমকি-ধামকি করেই থাকেন, এই বিষয় এলাকার মেম্বার ও চেয়ারম্যান ঘটনা সব কিছু জানেন।
৭ নং গুয়ারেখা ইউনিয়ন এর মেম্বার সাইফুল ইসলামকে ফোন কল দিলে  তাকে পাওয়া যায়নি। কাইয়ুম নিজে বাঁচার জন্য সুষ্ঠু বিচারের জন্য এলাকার চেয়ারম্যান মেম্বারদের কাছে বিচার দিন, তারা বলেন এ বিষয়টি আমরা দেখব ।
অথচ কাইয়ুম হসপিটালে ভর্তি থাকা অবস্থায়  নিজে বাদী হয়ে স্বরুপকাঠি থানায়( ৫ পাঁচ জন) বিরুদ্ধে  আসামী করে একটি অভিযোগ দায়ের করা হয় ।   অভিযোগের বিষয় স্বরুপকাঠি থানার কর্তব্যরত অফির্সাস ইনর্চাজ মোঃ আবির হোসেন জানান আমরা লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যাবস্থা নিবো।