• ২৭শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১২ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৬ই জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

শেবাচিমের সেই মাদকসহ আটক হওয়া কর্মচারী কালাম বরখাস্ত

বিডিক্রাইম
প্রকাশিত জুন ২৭, ২০২১, ২০:৫৩ অপরাহ্ণ
শেবাচিমের সেই মাদকসহ আটক হওয়া কর্মচারী কালাম বরখাস্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক: বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালের পরিচ্ছন্নতাকর্মী সেই গাঁজা কালাম মাদকসহ আটকের পর বরিশালের স্থানীয় একাধিক দৈনিক পত্রিকা ও অনলাইন নিউজ পোর্টালে সংবাদ প্রকাশের পরই গতকাল রবিবার দুপুরে তাকে সামরিক বরখাস্ত করা হয়েছে।

 

 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ সাইফুল ইসলাম। মাদকাশক্ত কালামকে ডোপ টেষ্ট করানো হবে কি জানতে জাইলে তিনি বলেন, আদালত থেকে তাকে ডোপ টেস্ট করার অনুমতি দেওয়া হলে আমার তার ডোপ টেস্ট করবো।

 

অন্যদিকে ঝাড়ুদার কালাম ওরফে ডিডি কালাম আটকের খবর শুনে খুশি হয়েছেন হাসপাতালেল একাধিক কর্মচারীরা। উল্লেখ্য, গত ২৫ জুন সন্ধ্যার দিকে নগরীর ২৩ নং ওয়ার্ডস্থ সাগরদী দরগাহ বাড়ীর সামনে ছালাম চেয়ারম্যান বাড়ীর উত্তর পার্শ্বের পাকা রাস্তার উপর থেকে হালিম বেপারীর ছেলে কালাম বেপারী ৫ গ্রাম গাঁজা নিয়ে যাওয়ার পথে বরিশাল কোতয়ালী মডেল থানার পুলিশ তাকে আটক করেন।

 

 

এঘটনায় বরিশাল কোতয়ালী মডেল থানায় এস আই শাহজালাল মল্লিক বাদী হয়ে গাঁজা কালামের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। একটি সূত্র জানিয়েছন শেবাচিম হাসপাতালে ৫তলায় গাইনী ওটির ক্লিনার তহমিনা বেগম এর ছেলে কালাম। কালাম হাসপাতালের কর্মচারীরা কাছে ডিডি কালাম হিসেবে পরিচিত।

 

 

তবে তিনি পরিচ্ছন্নতাকর্মী হয়ে পরিচালকের সাথে থাকেন সব সময়। এছাড়াও কালামের বিরুদ্ধে হাসপাতালের রয়েছে নানা অভিযোগ। তবে হাসপাতালেল কর্মচারীদের অভিযোগ ঝাড়ুদার কালাম ওরফে ডিডি কালাম তিনি নিজেকে হাসপাতাল চক্রে ডিডি কালাম হিসেবে পরিচয় দিয়ে আসছেন।

 

 

তিনি এর আগেও পুলিশের হাতে লরান থেকে পালিয়ে আসছিলো। হাসপাতাল কতৃপক্ষ ঝাড়ুদার কালামকে যদি ডোপ টেস্ট করায় তাহলেই বেড়িয়ে আসবে তার আসল পরিচয়।