• বরিশাল |২২শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

মঠবাড়িয়ায় মা ছেলে সহ ৪ জনের উপর হামলা

৭:২৪ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ২০, ২০২০ পিরোজপুর, প্রতিদিনের বরিশাল, বরিশাল বিভাগ, শিরোনাম

বিডি ক্রাইম ডেস্ক ॥ মঠবাড়িয়া জমি দখল করতে মা ছেলে সহ একই পরিবারের ৪ জনকে কুপিয়ে-পিটিয়ে রক্তাক্ত করেছে করিম মুন্সি ও তাদের সহযোগী সন্ত্রাসীরা।

 

রবিবার সকাল দশটায় উপজেলার দক্ষিণ মিঠাখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলো, ওই এলাকার প্রবাসী মোস্তফা মুন্সির ছেলে শামীম আহসান, শামীমের মা রোকিয়া বেগম, শামীমের চাচি সাবিনা আক্তার এবং চাচাতো ভাই শাহিন।

 

স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে শামীম, শাহীন এবং সাবিনাকে গুরুতর অবস্থায় বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

 

অন্যান্যরা মঠবাড়িয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নেয়া হয়।সন্ত্রাসীদের হামলায় শামীম আহসান ও সাবিনা আক্তার মাথায় ধারালো অস্ত্রের কোপে মারাত্মক জখম হয়েছে।

 

এবং অন্যান্যদের হামলায় যখম হয়।এদের মধ্যে শামীম ও সাবিনার অবস্থা খুবই আশঙ্কাজনক। তবে অবস্থার অবনতি হলে যেকোনো সময় তাদের দুজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা যেতে পারে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক।

 

আহতের স্বজনরা জানান, দীর্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে শামীম আহসান ও তার পরিবারের সাথে প্রতিবেশী মালেক মুন্সির ছেলে করিম মুন্সী ও তাদের সহযোগী হালিম মুন্সিদের বিরোধ চলে আসছে।

 

জোরপূর্বক জমি দখল করতে করিম মুন্সী, হালিম মুন্সী ও তাদের সহযোগী সন্ত্রাসীরা শামীম আহাসান ও তার পরিবারের উপর জুলুম অত্যাচার নিপীড়ন চালিয়ে আসছে।

 

তাছাড়া প্রায় সময় তারা শামীম ও তার পরিবারকে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে বিভিন্ন ভয়-ভীতির সহ প্রাণনাশের হুমকি দেয়।

 

শামীমের বাবা মোস্তফা মুন্সি প্রবাসে থাকার সুযোগে করিম ও তার বাহিনী জমি দখল করতে আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠে।

 

ঘটনার দিন সকাল দশটায় জমি নিয়ে শামীম আহসান দের সাথে করিম মুন্সী ও তার সহযোগীদের দ্বন্দ্ব হয়।
এরই জের ধরে একপর্যায়ে করিম মুন্সি, হালিম মুন্সি, তাদের সহযোগী ডালিম, ইউনূসসহ ১০-১২ জন সন্ত্রাসী পরিকল্পিতভাবে হত্যার চেষ্টায় শামীম আহাসানের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। শামীমকে করিম সহ অন্যান্যরা দেশীয় অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে রক্তাক্ত করা হয়। তাকে বাঁচাতে রোকেয়া বেগম, শাহিন, সাবিনা আক্তার আসলে তাদের ওপরও হামলা চালিয়ে জখম করা হয়।

 

স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে মর্গে ফারিয়া প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

 

এদিকে হামলার পর করিম মুন্সী ও তাঁর সহযোগীরা ঘটনা ভিন্ন দিকে প্রবাহিত করতে মামলার ষড়যন্ত্র চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে আহত শামীমের স্বজনরা জানায়।