• ২৮শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১৪ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ১৪ই জমাদিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনাম
ভোলায় ইয়াবা ও গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক মঠবাড়িয়ায় চঞ্চল্যকর সোবাহান পেয়াদা হত্যা মামলার ২ পালাতক আসামী গ্রেফতার রাজাপুরে মাঠজুড়ে হলুদের সমারোহ, কৃষকের মুখে হাসি বানারীপাড়ায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীসহ ৩জন বহিস্কার ভোলায় বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ বেদে নারী আটক বরিশাল কারাগারে বিভিন্ন উপকরণ বিতরণ করেন নবাগত জেলা প্রশাসক কলাপাড়ায় বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী দিদার উদ্দিন আহমেদ আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার গলাচিপায় রামনাবাদ নদীর উপরে প্রস্তাবিত ব্রিজের জায়গা পরিদর্শনে এমপি শাহজাদা আমাদেরকে কথায় নয় কাজে বড় হতে হবে: ডিসি ট্রাফিক জাকির হোসেন আমাদের উদ্দেশ্য মানবাধিকারকে সমুন্নত রেখে আইন শৃংখলা ঠিক রাখতে হবে: ডিসি খাইরুল আলম

ভারতে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন অনুমোদনের সুপারিশ

বিডিক্রাইম
প্রকাশিত জানুয়ারি ২, ২০২১, ০০:৪৬ পূর্বাহ্ণ
ভারতে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন অনুমোদনের সুপারিশ

ভারতের সেরাম ইন্সটিটিউটের তৈরি অক্সফোর্ড ভ্যাকসিনের অনুমোদনের জন্য ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়ার (ডিসিজিআই) কাছে সুপারিশ পাঠাতে যাচ্ছে সরকার নিয়োজিত বিশেষজ্ঞ প্যানেল। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এ খবর জানিয়েছে।

অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি ও অ্যাস্ট্রাজেনেকা ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানির যৌথ উদ্যোগে বানানো ভ্যাকসিন তৈরি করছে সেরাম ইন্সটিটিউট অব ইন্ডিয়া। অন্যদিকে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চের সঙ্গে আরেকটি ভ্যাকসিন তৈরি করছে ভারত বায়োটেক।

বিশেষজ্ঞ প্যানেলের বৈঠক এখনো চলছে বলে জানিয়েছে এনডিটিভি। এর আগে বুধবার ভ্যাকসিন তৈরিকারী দুটি দল প্যানেলের সামনে তথ্য উপস্থাপন করেন। ফাইজার তাদের তথ্য উপস্থাপনে আরও সময় চেয়েছে।

বছরের প্রথম দিনে ওষুধ নিয়ন্ত্রকের কাছে বিশেষজ্ঞ প্যানেলের দ্বারা অক্সফোর্ড ভ্যাকসিনের সুপারিশের বিষয়টি ভারতে করোনা মোকাবিলায় এক বড় পদক্ষেপ হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের পরেই বিশ্বের করোনা আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে আছে ভারত। ছয় থেকে আট মাসের মধ্যে ৩০ কোটি মানুষকে ভ্যাকসিন দেয়ার পরিকল্পনা করেছে দেশটির সরকার।

ভ্যাকসিনের পক্ষে ডিসিজিআই মতামত দিলে, জানুয়ারিতেই ভ্যাকসিন প্রদান শুরু করার কথা ভাবছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। আগামীকাল রাজ্যগুলোতে ভ্যাকসিন কার্যক্রমের মহড়ার দিন ঠিক করা হবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন বলেছেন, ‘জাতীয় নির্বাচনের মতোই প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। এমনকি বুথ পর্যায়ের প্রস্তুতিও নেয়া হয়েছে। প্রকৃত কার্যক্রমের প্রস্তুতির জন্য আগে মহড়া দেয়া হবে। এসএমএস’র মাধ্যমে সম্ভাব্য ভ্যাকসিন গ্রহণকারীদের জানানো হবে। সামনের সারির কর্মীরা প্রাধান্য পাবেন। ভ্যাকসিন নেয়ার পর ডিজিটাল সনদপত্রও প্রদান করা হবে।’

সেরাম ইন্সটিটিউট ও সরকারের মধ্যে ভ্যাকসিন ক্রয়ের চুক্তি এখনো স্বাক্ষরিত হয়নি। যদিও সেরাম বলেছে, স্থানীয় বাজারকেই তারা আগে প্রাধান্য দেবে। এরপর দক্ষিণ এশিয়া ও আফ্রিকায় রফতানি করা হবে।