• ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ৬ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

বাস কাউন্টার কর্মীদের হামলায় পবিপ্রবির ৫ শিক্ষার্থী আহত

বিডিক্রাইম
প্রকাশিত মে ২২, ২০২৪, ১৮:২৮ অপরাহ্ণ
বাস কাউন্টার কর্মীদের হামলায় পবিপ্রবির ৫ শিক্ষার্থী আহত

বিডি ক্রাইম ডেস্ক, বরিশাল॥পটুয়াখালীর পাগলার মোড়ে অবস্থিত সেভেন স্টার পরিবহনের টিকেট কাউন্টারের কর্মীদের হামলায় পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (পবিপ্রবি) পাঁচ শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন। আহতদের বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২১ মে) সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, পবিপ্রবির এক মেয়ে শিক্ষার্থী সেভেন স্টার পরিবহনে পটুয়াখালী টু খুলনা যাওয়ার টিকেট নেন। বাস সময় মত না আসায় মেয়ে শিক্ষার্থীর সঙ্গে থাকা এক ছেলে শিক্ষার্থী বাস দেরি করে আসার কারণ জানতে চাইলে টিকিট কাউন্টারের কর্মীরা খারাপ ব্যবহার করেন।

বাকবিতণ্ডায় একপর্যায়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে বরিশালগামী শিক্ষার্থীরা পাগলার মোড়ে আসেন ও কাউন্টারে থেকে ওই শিক্ষার্থীদের উদ্ধার করে আনতে গেলে কাউন্টারের কর্মীদের সঙ্গে মারামারি জড়িয়ে পড়েন। কাউন্টারের কর্মীরা লোহার পাইপ, লাঠি দিয়ে শিক্ষার্থীদের ওপর আক্রমণ চালায়য়। পাঁচ শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়।

হামলায় আহত এক শিক্ষার্থী বলেন, আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে বরিশাল যাচ্ছিলাম। কাউন্টারের লোকজন আমাদের এক শিক্ষার্থীকে আটকে রাখছে শুনে আমরা কয়েকজন ওই শিক্ষার্থীকে নিয়ে আসতে যাই। তখন কাউন্টারের লোকজন আমদের ওপর লোহার পাইপ, লাঠি, কাঠের টুকরো দিয়ে আক্রমণ চালায়।

তিনি বলেন, হামলায় এতে আমাদের একজনের হাত ভেঙে গেছে। একজনের মাথায় আঘাত লেগে ফেটে যায়। আরও কয়েকজন গুরুতর আহত হয়েছেন। আমরা আহত শিক্ষার্থীদের নিয়ে ভার্সিটির বাসে চলে আসলেও কাউন্টারের লোকজন বাসের মধ্যে উঠে হামলা চালিয়ে একজনের মাথা ফাটিয়েছে।

হামলার কথা শিকার করে পাগলার মোড়ের সেভেন স্টার পরিবহনের টিকেট কাউন্টারের ম্যানেজার বশির বলেন, বাস আসতে একটু দেরি করায় খুলনার এক যাত্রীর সঙ্গে থাকা এক ছেলে আমাদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করে। তার কিছু সময় পরে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শিক্ষার্থীরা এসে আমাদের কাউন্টারে হামলা চালায় ও আমাদের এক কর্মীকে আহত করে। আহত কর্মীকে দেখে কাউন্টারে থাকা অন্য কর্মীরা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে মারামারিতে জড়িয়ে পরে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. সন্তোষ কুমার বসু কালবেলাকে বলেন, আহত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের কোনো ধরনের সংঘর্ষে লিপ্ত না হতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আলোচনা করে দ্রুত সমাধান করা হবে।