• ১৯শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৩রা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১২ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

বানারীপাড়ায় স্বামীর পদাঙ্ক অনুসরণ করে অসহায় মানুষের পাশে আতিয়া আলম মিলি

বিডিক্রাইম
প্রকাশিত অক্টোবর ১৪, ২০২১, ০০:০৮ পূর্বাহ্ণ
বানারীপাড়ায় স্বামীর পদাঙ্ক অনুসরণ করে অসহায় মানুষের পাশে আতিয়া আলম মিলি

মো. সুজন মোল্লা,বানারীপাড়া: বিভিন তথ্যসূত্রে জানাগেছে, অতীতে বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলা ৫০শয্যা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি ছিলো কতিপয় রাজনৈতিক নেতাদের একটি ব্যবসায়িক কেন্দ্র।

তবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বরিশাল-২ আসনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সভাপতি মো. শাহে আলমকে মনোনয়ন দেয় উপ-মাহাদেশের সর্ববৃহৎ প্রাচীনতম রাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ।

তিঁনি বিজয়ী হবার পর থেকেই পাল্টাতে শুরু করে তার নির্বাচনী এলাকা বানারীপাড়া ও উজিরপুর উপজেলার জনপদের অতীতের সকল ধরণের নিষ্পেষিত অধ্যায়।

এমনকি অনেক আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের অবৈধ দান্দাবাজীও তিঁনি বন্ধ করে দেন। সেই দান্দাবাজ নেতারাই বর্তমানে আওয়ামী লীগের মধ্যে ঘাপটি মেরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন কাজে পদে পদে বাধার সৃষ্টি করছে বলে একাধিক তথ্যসূত্র বলছে।

তবে সংসদ সদস্যের সরাসরি তদারকির কারনে এ সময়ে বরিশাল বিভাগের মধ্যে সেবার ক্ষেত্রে মানোন্নয়নে অনেকটা এগিয়ে আছে দু’উপজেলার হাসপাতাল দুটি।

তবুও থেমে নেই আওয়ামী লীগের শিঁকড় থেকে উঠে আসা স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য মো. শাহে আলম এমপি।

বানারীপাড়া ও উজিরপুর উপজেলাকে উন্নয়নে এগিয়ে নিয়ে স্বাধীনতার পরবর্তী সময়ের সব রেকর্ডকে পেছনে ফেলেছেন এই জননন্দিত নেতা।

স্বামীর সেই মহত কাজের সাথে নিজেকে যুক্ত করতে তার পদাঙ্ক অনুসরণ করে অসহায় মানুষের জননী খ্যাত আতিয়া আলম মিলি পাশে দাঁড়াচ্ছেন দরিদ্র মানুষের।

একদিন বানারীপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে অসুস্থ রোগীদের দ্বিতীয় ও তৃতীয় তলায় উঠতে কষ্ট দেখেন তিঁনি। পরে সিদ্ধান্ত নেন রোগীদের ওঠা-নামার জন্য একটি আধুনিক হুইল চেয়ার প্রদানের।

স্বামীর কাছ থেকে পাওয়া সংসার খরচের টাকা দিয়ে কিঞ্চিত কিছু বাঁচিয়ে রেখে তা জমিয়ে অবশেষে বুধবার (১৩ অক্টাবর) দুপুরে হুইল চেয়ার নিয়ে উপস্থিত হন তিঁনি।

এ সময় ডাক্তার’রা তাকে ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত করেন। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডেকেল অফিসার ডাক্তার গোপাল শীল, মেডেকেল অফিসার ডাক্তার মো. হাফিজুর রহমান সাকিল, মেডেকেল অফিসার ডাক্তার সৈয়দ নাজমুল ইসলাম, প্রধান সহকারী মো. মহিউদ্দিন উকিল ও এমটি ইপিআই সহ কর্মকর্তা আব্দুল কাদের হাওলাদের কাছে আতিয়া আলম মিলি হুইল চেয়ার প্রদান করে বলেন, এটা মমতাময়ী মা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে অসহায় মানুষের জন্য উপহার।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. নুরুল হুদা, সংসদ সদস্যের এপিএস মো. জসিম মোল্লা, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের নেত্রী প্রভাষক ইয়াসমিন নির্মলা রেজা, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো. সুজন মোল্লা, যুবলীগ নেতা মশিউর রহমান সুমন, পৌর আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক শিক্ষক হায়দার আলী, ঢাকা উত্তর ছাত্রণীগের সাবেক সহ-সম্পাদক মো. সাইফুল ইসলাম, পৌর শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সজল চৌধুরী, যুবলীগ নেতা এ আহমেদ সাইফুল, কর্নেল, ছাত্রলীগ নেতা রাহাত মাল, মিরাজ মোল্লা প্রমূখ।

এদিকে উজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেওে একটি আধুনিক হুইল চেয়ার উপহার দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন আতিয়া আলম মিলি। এর আগে তিঁনি বানারীপাড়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির কার্যালয়ে শিক্ষকদের সাথে মতবিনিময় করেন।

এ সময় জাতির বিবেকদের কাছ থেকে কি করলে এলাকার এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভালো হয়, সেই দিকনির্দেশনা মুলক কথা শোনেন আতিয়া আলম মিলি।