• ২৮শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১৪ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ১৪ই জমাদিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি

শিরোনাম
ভোলায় ইয়াবা ও গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক মঠবাড়িয়ায় চঞ্চল্যকর সোবাহান পেয়াদা হত্যা মামলার ২ পালাতক আসামী গ্রেফতার রাজাপুরে মাঠজুড়ে হলুদের সমারোহ, কৃষকের মুখে হাসি বানারীপাড়ায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীসহ ৩জন বহিস্কার ভোলায় বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ বেদে নারী আটক বরিশাল কারাগারে বিভিন্ন উপকরণ বিতরণ করেন নবাগত জেলা প্রশাসক কলাপাড়ায় বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী দিদার উদ্দিন আহমেদ আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার গলাচিপায় রামনাবাদ নদীর উপরে প্রস্তাবিত ব্রিজের জায়গা পরিদর্শনে এমপি শাহজাদা আমাদেরকে কথায় নয় কাজে বড় হতে হবে: ডিসি ট্রাফিক জাকির হোসেন আমাদের উদ্দেশ্য মানবাধিকারকে সমুন্নত রেখে আইন শৃংখলা ঠিক রাখতে হবে: ডিসি খাইরুল আলম

বাংলাদেশ হবে ২৫তম বৃহৎ অর্থনীতির দেশ

বিডিক্রাইম
প্রকাশিত ডিসেম্বর ২৮, ২০২০, ১৩:১৩ অপরাহ্ণ
বাংলাদেশ হবে ২৫তম বৃহৎ অর্থনীতির দেশ

বিডিক্রাইম ডেস্ক:

এখন যে ধরনের অর্থনৈতিক বিকাশের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে তা অব্যাহত থাকলে ২০৩৫ সাল নাগাদ বাংলাদেশ হবে বিশ্বের ২৫তম বৃহৎ অর্থনীতি দেশ।

ব্রিটেনের অর্থনৈতিক গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর ইকোনমিক অ্যান্ড বিজনেস রিসার্চের (সিইবিআর) এক রিপোর্টে এ পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে।

বিবিসি বাংলা জানায়, ‘ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক লিগ টেবিল ২০২১’ নামের এই রিপোর্টটি শুক্রবার প্রকাশ করা হয়। এতে মূলত সামনের বছর এবং আগামী ১৫ বছরে বিশ্বের কোন দেশের অর্থনীতি কী হারে বাড়বে, তারই পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। সিইবিআর প্রতিবছর এই রিপোর্ট প্রকাশ করে।

এই রিপোর্ট অনুযায়ী আর মাত্র ৭ বছর পরেই যুক্তরাষ্ট্রকে টপকে চীন হবে বিশ্বের বৃহত্তম অর্থনীতি। আর ২০৩০ সালে ভারত হবে তৃতীয়।

এছাড়া ২০৩৫ সাল নাগাদ ১৯৩টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান বহু ধাপ ওপরে উঠে পৌঁছে যাবে ২৫ নম্বরে। ২০২০ সালের সূচক অনুযায়ী বাংলাদেশ এখন বিশ্বের ৪১তম বৃহৎ অর্থনীতির দেশ।

সিইবিআর বলছে, করোনাভাইরাস মহামারির কারণে বিশ্ব অর্থনীতিতে অনেক ওলট-পালট ঘটে গেছে। ইউরোপ-আমেরিকার বেশিরভাগ বড় অর্থনীতির দেশ ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

বিপরীতে চীন খুব কৌশলে করোনাভাইরাস দ্রুত এবং কঠোরভাবে মোকাবিলার কারণে সামনের বছরগুলোতে পৌঁছে যাবে বেশ সুবিধাজনক অবস্থানে।

চীনের মতো একইভাবে বাংলাদেশও যেহেতু করোনাভাইরাসের মধ্যেও কিছুটা অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ধরে রাখতে পেরেছে, তাই সামনের বছরগুলোতে বাংলাদেশে ধারাবাহিক এবং জোরালো অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি আশা করছে সিইবিআর।