• ২৭শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১২ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৬ই জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

বরিশালে ঢিলেঢালা ভাবেই লকডা‍উনের তৃতীয় দিন চলছে

বিডিক্রাইম
প্রকাশিত জুলাই ৩, ২০২১, ১৮:০১ অপরাহ্ণ
বরিশালে ঢিলেঢালা ভাবেই লকডা‍উনের তৃতীয় দিন চলছে

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

বরিশালে ঢিলেঢালাভাবে লকডা‍উনের তৃতীয় দিন চলছে। সকালে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা দেখা গেলেও শনিবার দুপুরের পর তেমন একটা চোখে পড়েনি। যদিও বিভিন্ন সড়কের মোড়ে মোড়ে পুলিশ সদস্যরা দায়িত্ব পালন করছেন। আর তাদের সাথে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করছেন রোভার স্কাউট ‍এবং রেড ক্রিসেন্টের সদস্যরা।

 

‍এদিকে বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে বন্ধ রয়েছে সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান। তাই নগরীতে মানুষের আনাগোনাও অনেকটা কম। এছাড়া শনিবার সরকারী অফিসে বন্ধের দিন হওয়ায় রাস্তাঘাট প্রায় জনশূন্য। বিচ্ছিন্নভাবে কিছু ব্যক্তিগত যানবাহন চলাচল করলেও শহর জুড়ে কোথাও কোনো গণপরিবহন চলাচল করছে না।

 

তবে বিভিন্ন সড়কে সীমিতসংখ্যক রিকশা, মাইক্রোবাস, ট্রাক, কাভার্ড ভ্যান, পিকআপ চলাচল করতে দেখা গেছে। চলাচল করতে দেখা গেছে মোটরসাইকেলও। তবে সড়কে বের হলেই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়তে হচ্ছে। প্রতিটি যানবাহনকে থামিয়ে বের হওয়ার কারণ জানতে চাইছেন তারা।

 

আর সদুত্তর দিতে না পারলে তাদের ফিরিয়ে দেয়া হচ্ছে। অপরদিকে প্রধান সড়কের দুই পাশের দোকানপাট বন্ধ রয়েছে। তবে খোলা রয়েছে কাঁচাবাজার। অলি-গলির নিত্যপণ্যের দোকানপাটও খোলা রয়েছে।

 

এছাড়া নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ওষুধ, নিত্য পন্য ও ফ্লেক্সিলোডের দোকান খোলা রয়েছে। অযথা খোলা রাখা চায়ের দোকানগুলোতে ভিড় দেখা গেছে। লকডাউন বাস্তবায়ন নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন নগরবাসী। সেসব দোকানে অল্প কিছু মানুষজন থাকলেও তা স্বাভাবিকের তুলনায় অনেকটাই কম। নগরীর জিলা স্কুল মোড়ে পুলিশের সাথে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন রোভার স্কা‍উটের সদস্যরা।

 

স্কাউট সদস্য সজিব হাওলাদার জানান, যে কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলা করার মতই ‍এই মহামারিকালীন তারা গণসচেতনতায় কাজ করছেন। নগরীর ২টি পয়েন্টে তাদের স্বেচ্ছাসেবকরা কাজ করছেন।

 

এছাড়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে পরিচালিত অভিযানেও সহযোগিতা করছেন তারা। লকডাউনের শেষদিন পর্যন্ত তারা মাঠে কাজ করবেন বলেও তিনি জানান। প্রসংগত, এই বিধিনিষেধ থাকবে আগামী ৭ জুলাই মধ্যরাত পর্যন্ত। বুধবার (৩০ জুন) এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের মাঠ প্রশাসন সমন্বয় অধিশাখা।