• ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ৬ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

জাতিসঙ্ঘে ইসরাইল-ফিলিস্তিন যুদ্ধ নিয়ে তুমুল হট্টগোল

বিডিক্রাইম
প্রকাশিত অক্টোবর ২৭, ২০২৩, ১৬:৫৩ অপরাহ্ণ
জাতিসঙ্ঘে ইসরাইল-ফিলিস্তিন যুদ্ধ নিয়ে তুমুল হট্টগোল

বিডি ক্রাইম ডেস্ক, বরিশাল ॥ ইসরাইল-ফিলিস্তিন যুদ্ধ নিয়ে নিরাপত্তা পরিষদ যখন ব্যর্থ হওয়ায় বৃহস্পতিবার জাতিসঙ্ঘ সাধারণ পরিষদে ইসরাইল ও আরব দেশগুলোর প্রতিনিধিদের আলোচনায় তীব্র বিতণ্ডার সৃষ্টি হয়।

নিরাপত্তা পরিষদে মোট চারটি প্রস্তাব দুই সপ্তাহেরও কম সময়ের মধ্যে ভেটোর মাধ্যমে বাতিল হওয়ায় বিষয়টি নিরাপত্তা পরিষদে গভীর বিভাজন সৃষ্টি করে।

তবে আরব দেশগুলো আশা করছে, সাধারণ পরিষদে কোনো দেশের ভেটো প্রয়োগের সুযোগ না থাকায় এবং যেকোনো প্রস্তাব পাস করার ক্ষেত্রে সে ধরনের কোনো বাধ্যবাধকতা না থাকায় ভিন্নভাবে পদক্ষেপ নেয়ার সুযোগ থাকবে।

জর্ডানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আয়মান সাফাদি ২২টি আরব দেশের পক্ষে বক্তৃতা দেন। বৃহস্পতিবার হামলায় অব্যাহত থাকার কথা উল্লেখ করে তিনি ইসরাইলের প্রতি ‘গাজাকে পৃথিবীর চিরস্থায়ী নরকে পরিণত করার’ অভিযোগ তোলেন।

এই যুদ্ধের ‘পরিণতি আগামী প্রজন্মকে তাড়িত করবে,’ উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, ‘আত্মরক্ষার অধিকার হত্যার লাইসেন্স নয়। সম্মিলিত শাস্তি আত্মরক্ষা নয় বরং একটি যুদ্ধাপরাধ।’

ইসরাইলি কর্মকর্তারা বলেছেন, ৭ অক্টোবর হামাসের হামলায় ১৫০০ লোক নিহত ও ২০০ জনেরও বেশি অপহৃত হয়েছে। এদিকে ফিলিস্তিনের হামলার প্রতিশোধ হিসেবে ইসরাইল বিরামহীন বোমাবর্ষণ চালিয়ে যায়।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মতে, ইসরাইলি হামলায় ৭ হাজার ৫০ জনেরও বেশি লোক নিহত হয়েছে। ইসরাইলি সৈন্যরা যদি ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে স্থল অভিযান শুরু করে তাহলে মৃতের সংখ্যা উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

জাতিসঙ্ঘে ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রদূত রিয়াদ মানসুর বলেন, ‘এই পাগলামি বন্ধ করতে আপনাদের পক্ষে কিছু করার গুরুত্বপূর্ণ সুযোগ রয়েছে।’ তিনি প্রতিহিংসার পরিবর্তে ন্যায়বিচারের পথ বেছে নেয়ার আহ্বান জানান।

মূলত মানবিক পরিস্থিতির উপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করে গাজা উপত্যকায় ‘অবিলম্বে যুদ্ধবিরতি’ এবং ‘অবাধে ত্রাণসামগ্রীর প্রবেশাধিকার’ নিশ্চিত করার আহ্বান জানিয়ে জর্ডান একটি খসড়া প্রস্তাব উন্থাপন করেছে। শুক্রবার প্রস্তাবটির ওপর ভোট গ্রহণের কথা রয়েছে।

জর্ডানের খসড়া প্রস্তাবটিতে হামাসের হামলার কথা উল্লেখ না করে বেসামরিক নাগরিকদের সুরক্ষার ব্যবস্থা করার সব পক্ষকে আহ্বান জানানো হয়েছে।

এদিকে ইসরাইলের জাতিসঙ্ঘ রাষ্ট্রদূত গিলাদ এরদান প্রস্তাবটি নিয়ে ক্ষুদ্ধ হন। তিনি প্রস্তাবের খসড়াকারীরা শান্তির বিষয়ে উদ্বিগ্ন বলে দাবি করে বলেন, এই যুদ্ধের সূচনাকারী নিকৃষ্ট খুনিদের কথা প্রস্তাবে উল্লেখ করা হয়নি।

সূত্র : এএফপি/বাসস