• ২রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ২৬শে রবিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

জমি নিয়ে বিরোধে পরিবার অবরুদ্ধ! প্রশাসনের সহায়তা চান ভুক্তভোগীরা

বিডিক্রাইম
প্রকাশিত নভেম্বর ২২, ২০২১, ০০:৫৮ পূর্বাহ্ণ
জমি নিয়ে বিরোধে পরিবার অবরুদ্ধ! প্রশাসনের সহায়তা চান ভুক্তভোগীরা
বেতাগী (বরগুনা) প্রতিনিধিঃ বরগুনার বেতাগীর ১ নম্বর বিবিচিনি ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের বেপারী বাড়ীর  মো. ফোরকান বেপারীসহ তাঁর পরিবারকে অবরুদ্ধ করে রেখেছে। বাড়ির প্রবেশ পথে বাঁশের বেড়া দিয়ে অবরুদ্ধ করে রাখার অভিযোগ উঠেছে তার আপন চাচাতো ছোট ভাই রুহুল আমিন বেপারীর বিরুদ্ধে।  জমি সংক্রান্ত বিরোধে তাদেরকে অবরুদ্ধ করে রেখেছে বলে ভুক্তভোগি পরিবার ও এলাকা সূত্রে জানা গেছে।
সরেজমিনে জানা গেছে, ফোরকান বেপারী’র  তাঁর চাচাতো ভাই রুহুল আমিন বেপারীর সাথে দীর্ঘদিন ধরে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে গত ২০১৯ সালের ২৭ জুলাই তারিখ এলাকায় জনপ্রতিনিধি ও গ্রাম্য সালিশী মীসাংশা করা হয়।
গত ১৪ বছর ধরে ওই বাড়িতে পরিবারের ৮ সদস্য নিয়ে বসবাস করে আসছে ফোরকান বেপারীর পরিবার।
  গত ২০২০ সালের জুন মাসের মাঝামাঝি তাঁর আপন চাচাতো  ভাই রুহুল আমিন বেপারী বাড়ির প্রবেশ পথে বাঁশের বেড়া দিয়ে অবরুদ্ধ করে দেয়।
এ ব্যাপারে সাবেক ইউপি সদস্য মো. আব্দুর ছত্তার মল্লিক জানান, ‘ আমরা সালিশগন তো এটা মীমাংশা করে দিয়েছি তাহলে রুহুল আমিন বেপারী কোন ক্ষমতার বলে সালিশগনের কথা অমান্য করেন আবার বাঁশের বেড়া দিয়ে সেটা আমার জানা নেই। ‘
  বিবিচিনি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. নওয়াব হোসেন নয়ন জানান,’  গরিয়াবুনিয়া বাজারের মুক্তিযোদ্ধা অফিসে তাদের বিরোধপূর্ন বিষয়গুলো নিয়ে সালিশগন  বসে মীমাংশা  করে দিয়েছি আরও ২ বছর পূর্বে। তবে এ নিয়ে এখনও বিরোধ থাকার কথা নয়। ‘
   এ ব্যাপারে রুহুল আমিন বেপারী জানান,’ জমির সঠিক সমাধান করা হয়নি। ‘
 ভুক্তভোগী অবরুদ্ধ পরিবার ফোরকান বেপারী অভিযোগ করে বলেন,’ সালিশ মীমাংশার পরেও কেন অবরুদ্ধ করা হয়েছে।  এজন্য আমি ন্যায্য বিচারের দাবি জানাই।’
  এ বিষয় বেতাগী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শাহ আলম বলেন,’ থানায় মামলা হলে সঠিক তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।’