• ৯ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ২৬শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ২৬শে রমজান, ১৪৪২ হিজরি

ছাত্র ও সংবাদকর্মী যখন সফল কৃষক

বিডিক্রাইম
প্রকাশিত মে ৩, ২০২১, ১৯:২৬ অপরাহ্ণ
ছাত্র ও সংবাদকর্মী যখন সফল কৃষক

স্বপন কুমার ঢালী, বেতাগী ॥ খাদ্যদ্রব্যে ভেজাল কিংবা বিষ মিশানোর মতো ভয়াবহ কাজ এখনো চলছে আমাদের দেশে। এর ফলে যে শুধু স্বাস্থ্যঝুঁকি বৃদ্ধি পাচ্ছে তাই না, বরং পরিবেশও ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে।

আর এসব দূর করতে হলে লাগবে শিক্ষা। কৃষক যখন বুঝবেন বিষ মেশানোর ফল, তিনি সচেতন হবেন; উৎপাদন করবেন বিষমুক্ত ফসল। আর এ লক্ষ্যে অনার্স-মাস্টার্স সম্পন্ন করে কৃষিকাজকেই জীবিকা হিসেবে নিয়েছেন উপকূলীয় জনপদ বরগুনার বেতাগী উপজেলার সদর ইউনিয়নের ভোলানাথ গ্রামের অলি আহমেদ।

অলি আহমেদ পড়াশোনা করেছে বেতাগী সরকারি কলেজ থেকে ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে স্নাতক পাস করে এ বছর বরিশাল বিএম কলেজে ব্যবস্থাপনা বিষয় মাষ্টার্স পরীক্ষার্থী। পড়ালেখার পাশাপাশি বসে নেই সে। স্বেচ্ছাসেবী যুব সংগঠনের একাধিক নেতৃত্ব ও সংবাদমাধ্যমের কাজের ফাঁকে কৃষি পন্য উৎপাদন আগ্রহী হয়েছে।

কাজ করছে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি যুব সংগঠনের বেতাগী উপজেলার দলনেতা হিসেবে। সব সময় কাজ নিয়ে নিজেকে রাখে। মুখে সর্বদা হাসি খুশি মনোভাব নিয়ে কাজ করছে। সংবাদকর্মী হিসেবে ‘বাংলাদেশের খবর’ নামে এক জাতীয় পত্রিকায় বেতাগী উপজেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছে।

 

অলি আহমেদের জানায়,‘ বাংলাদেশে কৃষি ফসলের ক্ষেতে কৃষক ফসল উৎপাদনের জন্য কৃটনাশক ব্যবহার করছেন। এতে যেমন মাটি ও পরিবেশ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। তেমনি মানুষের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। ’

এবছর জানুয়ারিতে আমান ধান কাটার পরে পতিত জমিতে মুগ , মসুর ও কলাই ডাল আবাদ করে ব্যাপক ফলন পেয়েছে। এতে তাঁর মুখে হাসি ফুটেছে। এক একর জমিতে সাড়ে পাচঁ হাজার টাকা খরচ করে বিভিন্ন মুগ, মসুর ও কলাই ডাল জাতীয় শস্য ২ শ কেজি ঘরে তুলেছেন। যার বাজার মূল্য ৭৫ হাজার টাকা।

এছাড়া তাঁর নিজস্ব জমিতে বিভিন্ন প্রজাতির কলা, ঝিঙ্গা, বরবটি, টমেটো, বাধাঁ কপি, পাতা কপি, মুলা, শালগম চাষ করে বেশ সাফল্যে হয়েছে। বর্তমানে মালটা ও আমের বাগান করছে। ৬ একর জমিতে বোরো ধান চাষ করেছেন এবং ফলনও ভালো হয়েছে।

এ বিষয় পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি বিষয় সদ্য কোর্স সম্পন্নকারী কৃষিবিদ লিটন কুমার ঢালী বলেন,‘ এ দেশকে কৃষি নির্ভর হিসেবে গড়ে তুলতে হলে শিক্ষিত যুব সমাজকে এগিয়ে আসতে হবে এবং ভেজাল ও বিষ মুক্ত কৃষিপন্য উৎপাদন করা প্রয়োজন।’

অলি আহমেদ জানায়,‘ অনার্স-মাস্টার্স পাশ করে চাকরির জন্য বিভিন্ন দপ্তরের দরজায় কড়া নাড়া না দিয়ে কৃষি পন্য উৎপাদনে আসুন। পরিবারের ও দেশের চাহিদা পূরণ করে বিশ্ব বাজারে বাংলাদেশী কৃষি পন্য জড়াতে এগিয়ে আসার আহবান জানিয়েছেন তরুণ এ কৃষক।

বেতাগী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. ইকবাল হোসেন মজুমদার বলেন, ‘কৃষিকাজের সাথে সম্পৃক্ত তরুণ এ কৃষককে উৎসাহিত করতে সব রকমের সহযোগিতা করা হবে।’