• ২৩শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৯ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১২ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

গলাচিপায় ইউপি নির্বাচনের শেষ মুহূর্তের প্রচারনায় ব্যস্ত প্রার্থীরা

বিডিক্রাইম
প্রকাশিত জুন ১০, ২০২১, ২০:২৯ অপরাহ্ণ
গলাচিপায় ইউপি নির্বাচনের শেষ মুহূর্তের প্রচারনায় ব্যস্ত প্রার্থীরা

সঞ্জিব দাস, গলাচিপা ॥ পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার ৪টি ইউপি নির্বাচনের বাকি আর ১১ দিন। চলছে শেষ মুহূর্তের প্রচারণা। বৃহস্পতিবার চিকনিকান্দী ইউনিয়নের নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থী সাজ্জাদ হোসেন রিয়াদ গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন। প্রচারণা এখন তুঙ্গে। চেয়ারম্যান ও সদস্য প্রার্থীরা ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন শেষ মুহূর্তের প্রচারণায়।

কর্মী-সমর্থকেরা নিজ নিজ প্রার্থীর পক্ষে ভোটারদের মন জয় করতে জোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। ভোটাররাও এখন ব্যস্ত চুলচেরা বিশ্লেষণে। উপজেলার ৪টি ইউনিয়নের স্থাগিতকৃত নির্বাচন আগামী ২১ জুন অনুষ্ঠিত হবে। বৃহস্পতিবার বিভিন্ন এলাকায় সরেজমিনে দেখা গেছে, প্রার্থীদের প্রচারণার মাইকিংয়ে মুখর ইউনিয়নের বিভিন্ন বাজার এলাকা। কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে গণসংযোগে ব্যস্ত প্রার্থীরা। কেউ কুশল বিনিময় করছেন। কেউ দিচ্ছেন প্রতিশ্রুতি। চিকনিকান্দী ইউনিয়নে গণসংযোগের সময় কথা হয় আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী সাজ্জাদ হোসেন রিয়াদের সঙ্গে।

তিনি বলেন, ‘ভোটারদের স্বতঃস্ফূর্ত সাড়া পাচ্ছি। জয়ের ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী।’ তিনি ভোটারদের কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান। এ ছাড়া অন্য তিন ইউনিয়নেরও চেয়ারম্যান ও সদস্য প্রার্থীরা গণসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন। রাত-দিন সমানে চলছে প্রচারণা। এদিকে রতনদী তালতলী ইউনিয়নে উলানিয়া বাজারে গণসংযোগ করেছেন নৌকার প্রার্থী গোলাম মস্তফা খান। তিনি বলেন, সকল ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে ঘুরে সাধারণ মানুষের ভালবাসা পাচ্ছি।

তারা আমাকে আবারো চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চান। আমি জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী। জনগণের জন্য আমার সহযোগিতা আগেও ছিল, ভবিষ্যতেও থাকবে। অন্যদিকে গোলখালী ইউনিয়নে গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন নৌকা মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা নাসির উদ্দিন হাওলাদার। তিনি বলেন, সুষ্ঠ এবং নিরপেক্ষ নির্বাচন হবে বলে আমার বিশ^াস। চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে আমার বাকি কাজ শেষ করব। গোলখালী ইউনিয়নে ইতিমধ্যে যোগাযোগ ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নতি হয়েছে।

মানুষ এখন খুশি। তারা আমাকে আবারো নির্বাচিত করবেন বলে আশ^াস দিচ্ছেন। এদিকে আমখোলা বাজার, মুদির হাটসহ বিভিন্ন স্থানে প্রচারোনা চালিয়েছেন আমখোলা ইউনিয়নের নৌকা মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী কামরুজ্জামান মনির। তিনি বলেন, আমি মানুষের খোঁজ খবর আগেও রেখেছি এখনও রাখছি। আমখোলা ইউনিয়নে শতভাগ ভাতার ব্যবস্থা করা হবে। সবার সাথে কুশল বিনিময় করছি। সবাই আমাকে ভোট দিয়ে বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ধারাকে অব্যহত রাখবে।